Powered by Hooligan Media

লোগো ডিজাইন করে ইনকাম-লোগো ডিজাইন করে প্রতি মাসে 50,000/- টাকা উপার্জন করুন

বর্তমানে আমাদের দেশে অনেক শিশু ৫০ হাজার টাকা আয় করছে। প্রতি মাসে আরও কিছু সময় ব্যয় করে তাদের পড়াশোনা এবং চাকরির পাশাপাশি গ্রাফিক্স ডিজাইন করা, তাও কোনো বিনিয়োগ ছাড়াই। গ্রাফিক্স ডিজাইন আজকাল একটি জনপ্রিয় এবং চাহিদাপূর্ণ পেশা। আপনি যদি গ্রাফিক্স ডিজাইন করে নিজেকে ডেভেলপ করতে চান বা ক্যারিয়ার গড়তে চান, তাহলে আপনিও আপনার সৃজনশীল ধারণাগুলোকে কাজে লাগিয়ে খুব সুন্দর ক্যারিয়ার গড়তে পারেন। আজকাল গ্রাফিক ডিজাইনের অনেকগুলো সেক্টর আছে, তার মধ্যে একটি জনপ্রিয় সেক্টর হল লোগো ডিজাইন। আর বর্তমান বাজারে এর চাহিদা অনেক বেশি এবং জনপ্রিয়। এবং এর চাহিদা রয়েছে। লোগো ডিজাইন করে প্রতি মাসে 50,000/- টাকা উপার্জন করুন।

লোগো ডিজাইন করে প্রতি মাসে 50,000/- টাকা উপার্জন করুন।

আপনি যদি গ্রাফিক ডিজাইনে কাজ করতে চান তবে আপনাকে অবশ্যই ক্রমাগত নতুন ধারণা এবং সৃজনশীল বিন্যাস তৈরি করতে হবে যা আপনাকে খুব দ্রুত এবং দক্ষতার সাথে এগিয়ে যেতে দেবে।

আজ আমি এখানে আলোচনা করব আসলে গ্রাফিক্স ডিজাইন কি। এবং লোগো ডিজাইন কি? লোগো ডিজাইন কোথায় শিখবেন এবং চাহিদা কি? আর আপনি যদি লোগো ডিজাইন শিখে ক্যারিয়ার গড়তে চান তাহলে আপনি কত আয় করতে পারবেন এবং কোথা থেকে আয় করতে পারবেন? একজন লোক ডিজাইনার তার কাজ কোথা থেকে পান? এই সব বিষয় নিয়ে আপনাদের জন্য আজকের এই টিউটোরিয়ালটি তৈরি করলাম।

Powered by Hooligan Media

বন্ধুরা চলুন শুরু করা যাক আমাদের মূল পর্ব:

#লোগো ডিজাইন কি

আমরা গ্রাফিক্স ডিজাইনে প্রথম এসেছি, সেক্টরের লোগো এবং লোগো ডিজাইনগুলির মধ্যে একটি। আমরা সাধারণত একজন ব্যক্তি বলতে যা বুঝি তা হল একটি কোম্পানি বা কোম্পানির ব্র্যান্ডিং যাতে যারা এটি দেখে তারা সবাই জানে যে এটি এই কোম্পানি। আর এর মাধ্যমে খুব সহজেই একটি কোম্পানিকে চেনা যায়। বিশ্বের বিখ্যাত কিছু কোম্পানি বা ব্র্যান্ড যাদের লোগো সহজেই চেনা যায় – যেমন অ্যাপল, স্যামসাং, গুগল বা ফেসবুক এবং বাংলাদেশি ব্র্যান্ড আড়ং, গ্রামীণফোন, রবি, এয়ারটেল, টেলিটক, প্রাণ বা প্রথম আলো।

প্রতিটি কোম্পানি বা ব্র্যান্ড লোগো উপর অনেক নির্ভর করে. লোগো যত সহজ বা সুন্দর হবে, মানুষ তত সহজে কোম্পানির কথা মনে রাখতে পারে।

# কেন লোগো ডিজাইন শিখবেন:

আপনার যদি সৃজনশীল ধারণা থাকে বা ডিজাইন করার ভালো ধারণা থাকে তাহলে আপনি গ্রাফিক ডিজাইন সেক্টরে লোগো ডিজাইন শিখতে পারেন। এটি একটি নিখুঁত বা একটি সেক্টর হিসাবে গ্রাফিক্স ডিজাইন অন্তর্ভুক্ত করে। সারা বিশ্বের বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটপ্লেস এবং অফলাইন মার্কেটপ্লেসে এর চাহিদা ব্যাপক। প্রতিটি কোম্পানি চায় তার কোম্পানির লোগো অনন্য এবং খুব সুন্দর এবং সহজ হোক। যাতে একজন গ্রাহক বা জনসাধারণ এটি তুলে নিতে পারে এবং খুব সহজেই মনে রাখতে পারে। তাই বিভিন্ন কোম্পানির লোগোর পেছনে এর দাম ৫০ ডলার থেকে ৫০০ ডলার পর্যন্ত।

একবার ভাবুন আপনি যদি একজন ব্যক্তির জন্য ২০০ ডলার প্রদান করেন যা আমাদের বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ১৭ হাজার টাকা। এবং যদি আপনি একদিন বা কয়েক ঘন্টার মধ্যে সেই কাজটি করতে পারেন তবে ভবিষ্যত কেমন হতে পারে?

# ক্যারিয়ার হিসাবে লোগো ডিজাইন:

আপনি যদি একজন ভালো মানের দক্ষ লোগো ডিজাইনার হতে না পারেন তাহলে আজকের বিশ্বের ফ্রিল্যান্সিং বা আউটসোর্সিং ওয়েবসাইটগুলো আপনাকে শীর্ষ পর্যায়ে দাবি করবে। মনে রাখবেন আপনি যদি একজন হন তবে আপনি শুধুমাত্র একটি কাজের পিছনে দৌড়াবেন না কারণ আপনার পিছনে অনেক কোম্পানি তৈরি করার জন্য আপনাকে লোগো ডিজাইন করার জন্য নিয়োগ করা হবে। আজকাল অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলি একজন পেশাদার ডিজাইনারকে লোগো ডিজাইনের জন্য 100 থেকে 1000 ডলার পর্যন্ত দিতে প্রস্তুত।

তাই বুঝে নিন আপনার ক্যারিয়ার কোথায় হবে যদি আপনি ভালো মানের বা দক্ষ ডিজাইনার হন। এর চাহিদা অনলাইনে নয় কিন্তু বর্তমানে অফলাইনে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। আপনার যদি ভাল আত্মবিশ্বাস থাকে বা আপনার যদি সৃজনশীল মনোভাব থাকে তবে আপনি অল্প সময়ের মধ্যে একজন দক্ষ লোগো ডিজাইনার হয়ে আপনার ভাল ক্যারিয়ার গড়তে পারেন।

#লোগো ডিজাইনের মান কত?

সংক্ষেপে, আজকের অনলাইন মার্কেটপ্লেস এবং অফলাইনে লোগো ডিজাইনের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বর্তমানে, বিভিন্ন অনলাইন এবং অফলাইন মার্কেটপ্লেসে এর কাজের অভাব নেই। একজন দক্ষ ডিজাইনার ঘরে বসে অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলিতে প্রতি মাসে 50 হাজার টাকা থেকে ৫ লাখ টাকা আয় করতে পারেন।

# কি শিখতে হবে?

আপনি যদি একজন লোগো ডিজাইনার হতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই বেশ কিছু গ্রাফিক ডিজাইন সফটওয়্যার ফাংশন শিখতে হবে। জনপ্রিয় কিছু সফটওয়্যার হলঃ

অ্যাডবি ইলাস্ট্রেটর
অ্যাডোবি ফটোশপ
একটি ড্র করেছে
আপনাকে এরকম বেশ কিছু সফটওয়্যারের কাজ শিখতে হবে।

# কোথা থেকে শিখবেন:

কোথায় কাজ করতে হবে তা শেখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যদি একজন দক্ষ ডিজাইনার হতে চান তবে আপনাকে অবশ্যই বেশ কয়েকটি সফ্টওয়্যারের কাজ শিখতে হবে এবং আপনি সেগুলি নিজে থেকে বা বিনামূল্যে শিখতে পারেন।

১. বিনামূল্যের লোগো ডিজাইন:

আপনি যদি বিনামূল্যে লোগো ডিজাইন শিখতে চান তবে আপনাকে বেশ কয়েকটি প্রশ্ন লিখতে হবে এবং গুগল বা ইউটিউবে অনুসন্ধান করতে হবে:

যেমন: ইলাস্ট্রেটর টিউটোরিয়াল, অ্যাডভান্সড ইলাস্ট্রেটর টিউটোরিয়াল, অ্যাডোব ইলাস্ট্রেটর টিউটোরিয়াল ইউটিউব, ইলাস্ট্রেটর টিউটোরিয়াল 2020, গ্রাফিক ডিজাইনের জন্য ইলাস্ট্রেটর টিউটোরিয়াল, লোগো ডিজাইন টিউটোরিয়াল ইলাস্ট্রেটর, লোগো মেকার, লোগো ডিজাইন ফ্রি কোর্স, লোগো ডিজাইন ফ্রি লোগো ডিজাইন, লোগো ডিজাইন বাংলা, Adobe Photoshop Tutorial, Photoshop Free Tutorial, Advance Photoshop Tutorial, ইত্যাদি।

আপনি যদি এই সমস্ত প্রশ্নের সাথে গুগল বা ইউটিউবে অনুসন্ধান করেন তবে আপনি অসংখ্য লোগো ডিজাইনের টিউটোরিয়াল পাবেন। আপনি কিছু সময় ব্যয় করে খুব ভালভাবে লোগো ডিজাইন শিখতে পারেন।

আমি মনে করি এটি বিনিয়োগ ছাড়া অন্য কিছু ব্যয় না করে লোগো ডিজাইন শেখার সেরা এবং উপায়গুলির মধ্যে একটি।

২. প্রদত্ত লোগো ডিজাইন:

আর আপনি যদি কোনো টাকা খরচ না করেই লোগো ডিজাইন শিখতে চান, অনলাইনে বিভিন্ন রিসোর্স আছে যেখান থেকে আপনি হয় একটি টিউটোরিয়াল কিনতে পারেন অথবা তাদের ডিভিডি ভার্সন কিনতে পারেন অথবা তাদের কাছ থেকে লাইভ লোগো ডিজাইন শিখতে পারেন।

আর বাংলাদেশ ও ভারতে লোগো ডিজাইনের জন্য আমাদের অনেক ইনস্টিটিউট আছে কিন্তু আপনি সেখানে গিয়ে গ্রাফিক ডিজাইন অর্থাৎ ডিজাইন শিখতে পারবেন। এজন্য প্রতিটি কোর্সের জন্য খরচ করতে হবে ৫ হাজার থেকে ৩০ হাজার টাকা।

এখন আপনি যা করতে চান তা হল আপনি যদি ঘরে বসে বিনামূল্যে শিখতে চান তবে আপনার অর্থও বাঁচবে এবং অসুবিধা সহ কোনও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে যেতে হবে না।

# কোথায় কাজ পাবেন:

আপনি যদি একজন লোগো ডিজাইনার হন, তাহলে বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটপ্লেস আছে, আপনি চাইলে এখান থেকে কাজ করে আপনার ক্যারিয়ার গড়তে পারেন। লোগো ডিজাইন এবং গ্রাফিক ডিজাইনের জন্য জনপ্রিয় মার্কেটপ্লেসগুলি হল:

ফাইভার
ফ্রিল্যান্সার
আপওয়ার্ক
নিরানব্বইটি ডিজাইন ইত্যাদি

# কিভাবে লোগো ডিজাইন করে আয় করবেন?

লোগো ডিজাইন করে কত টাকা আয় করা যায় তা আমি উপরে বিস্তারিত বলেছি কিন্তু আবার যদি আপনি একজন ভালো মানের দক্ষ লোগো ডিজাইনার হন তাহলে আপনি লোগো ডিজাইন করার জন্য এবং বিভিন্ন বড় কোম্পানির জন্য 50 ডলার থেকে 2000 টাকা আয় করতে পারেন। আরও বাড়তে পারে।

এছাড়াও, আপনি চাইলে অনলাইনে 5 ডলার এবং 10 ডলারে ছোট কাজ করতে পারেন।

# ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস লোগো ডিজাইনের সুযোগ:

ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসে সমস্ত চাকরির প্রায় 14% গ্রাফিক ডিজাইনের উপর নির্ভর করে। গ্রাফিক্স, লোগো ডিজাইন, ব্যানার এবং মাল্টিমিডিয়া কাজের ক্ষেত্রে, রাজস্ব গত বছর 44% বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই আমরা বলতে পারি যে লোগো ডিজাইন হতে পারে তরুণ উচ্চাকাঙ্ক্ষী ফ্রিল্যান্সারদের জন্য একটি বাস্তবসম্মত এবং এগিয়ে-চিন্তার বিকল্প।

# একটি লোগো ডিজাইনের জন্য কিছু সৃজনশীল ধারণা মাথায় রাখতে হবে

আমি নিচে বেশ কিছু ধারনা দিয়েছি যদি আপনি এই সকল ধারনা মাথায় রেখে একটি লোগো ডিজাইন করেন তাহলে অবশ্যই আপনার লোগোটি আকর্ষণীয় হবে এবং ক্রেতা বা গ্রাহকরা এটি পছন্দ করবেন সন্দেহ নেই। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক ধারনাগুলো:

১. খুব সহজ নকশা:

আপনি যদি একটি লোগো ডিজাইন করেন, আপনি যত সহজে ডিজাইন করবেন, গ্রাহকের কাছে এটি তত বেশি পছন্দ হবে এবং বোঝা যাবে। এবং একটি সাধারণ সামান্য লোগো ডিজাইন বেশ আকর্ষণীয় দেখায়। উপাদান যত কম হবে তত ভালো। লোগো ডিজাইন করা।

২. ডিজাইন পরিবর্তন করা উচিত:

আপনার ডিজাইন ফরম্যাটগুলিও সময় বা যুগের সাথে পরিবর্তিত হওয়া উচিত। আপনার ডিজাইন যত বেশি ফ্রেশ এবং আপডেটেড হবে, ক্রেতারা আপনার ডিজাইন তত বেশি পছন্দ করবে এবং এটি তত বেশি আকর্ষণীয় হবে। লোগো ডিজাইন করা।

৩. সময়ের সাথে কাজ করা:

সেই সময়ের বিভিন্ন প্রবণতা মাথায় রেখে লোগো ডিজাইন করতে হবে। আপনি যদি পুরানো ট্রেন্ডের কথা মাথায় রেখে লোগো ডিজাইন করেন তাহলে সেটা অনেক পুরনো ডিজাইন হয়ে যাবে। তাই আপনাকে সব সময় নতুন ধারণা তৈরি করতে হবে। লোগো ডিজাইন করা।

৪. লোগো সদৃশ করা যাবে না:

লোগো ডিজাইন কখনই অন্যের লোগো লক করে করা যায় না। প্রতিটি লোগোর জন্য, কোম্পানির ব্র্যান্ড এবং কাজের ধরন বুঝে নতুন ডিজাইনের ধারণা তৈরি করে লোগোটি ডিজাইন করা উচিত। লোগো ডিজাইন করা।

৫. ফন্ট ব্যবহার:

যেহেতু একটি কোম্পানি বা একটি পরিষেবার লোগো তার পরিচয়ের বাহক। কোম্পানির ফোন বা নামের সাথে সঙ্গতি রেখে কোনো অক্ষর না দিয়ে এখানে একটি সৃজনশীল নকশা দেওয়া যৌক্তিক। এটি সবচেয়ে আকর্ষণীয় দেখাবে। লোগো ডিজাইন করা।

৬. লোগোর উদ্দেশ্য:

মনে রাখবেন যে একটি লোগো কোম্পানির কাজের ক্যাটাগরি অনুযায়ী ডিজাইন করা উচিত, কোম্পানির নাম নয়। কারণ একটি লোগো একটি কোম্পানির পণ্য বা পরিষেবার পরিচয় বহন করে। সুতরাং একটি কোম্পানির পরিষেবা বা পণ্য তার উপর নির্ভর করে, তবে একটি লোগো ডিজাইন করা উচিত। লোগো ডিজাইন করা।

Leave a Comment