Powered by Hooligan Media

ডোমেইন কি? ডোমেইন কত প্রকার? ডোমেইন সম্পর্কে বিস্তারিত এখানে দেখুন

সহজ ভাষায় বলতে গেলে ডোমেইন হলো একটি নাম। যার মাধ্যমে একটি ওয়েবসাইটের পরিচয় বহন করে। একটি ডোমেইন নাম এর ফলেই যেকোনো একটি ওয়েবসাইটকে খুঁজে পাওয়া সম্ভব। তবে সাধারণভাবে শুধুমাত্র একে ডোমেইন নাম বললে ভুল হবে কেননা, ডোমেইন নামের ব্যাপক ভিন্নতা এবং ব্যবহার রয়েছে।

তবে একটি ডোমেইন নাম দ্বারা যে কোন একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটের পরিচয় বহন করার পাশাপাশি আরও কিছু প্রকারভেদ এবং পার্থক্য বহন করে এই ডোমেইন নেম। ডোমেইন কি

আর এই কারনেই ডোমেইন নেমের প্রকারভেদ এবং ডোমেইন নেমের পার্থক্য নিয়ে আজকের আর্টিকেলে আলোচনা করতে চলেছি।

Powered by Hooligan Media

আজকের এই আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়লে আপনি জানতে পারবেন ডোমেইন নেম কি? ডোমেইন কত প্রকার? মানুষ কেন ডোমেন ইউজ করেন সেই সম্পর্কে।

এবং সেই সাথে আজকে আমরা আপনাকে জানাবো আপনি কিভাবে ডোমেইন ক্রয় করবেন এবং ডোমেইন ক্রয় করার মাধ্যমে কিভাবে অনলাইনে ইনকাম শুরু করবেন সেই সম্পর্কে।

সেই সাথে আপনাকে জানানোর চেষ্টা করব ডোমেইন নেম এর দাম কত? ডোমেইন নেমের প্রতিবছর রিনিউ করতে কত টাকা লাগে? এবং আপনি কিভাবে, কোথা থেকে ডোমেইন কিনবেন সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করব।

যথারীতি ডোমেন নেম সম্পর্কে আপনার যত প্রশ্ন আছে, সকল প্রশ্নের উত্তর দেয়ার চেষ্টা করব আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে।

তাই ডোমেইন নেম সম্পর্কে আপনি যদি এটুজেট সকল বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চান তাহলে অবশ্যই শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

ডোমেইন নেম কি?

আপনি যখন কোনো প্রয়োজনে একটি ওয়েব সাইট অথবা ব্লগ তৈরি করতে যাবেন তখন আপনার সর্বপ্রথম ডোমেইন নামের প্রয়োজন হবে।

কারণ আমি প্রথমেই বলেছি যে, ডোমেইন নেম একটি ওয়েবসাইটের পরিচয় বহন করে। আরও সহজভাবে বলতে গেলে বলা যায়, আপনি যখন পৃথিবীতে জন্ম নিয়েছেন ঠিক তখনই আপনার একটি নাম নির্ধারণ করা হয়েছে।

আর আপনার নাম এ কারণেই নির্ধারণ করা হয়েছে যে, আপনাকে যেকোন সময় আপনার প্রয়োজনে অথবা অন্য কারো প্রয়োজনে আপনার নাম ধরে ডাকলে আপনি সেই ডাকে যেন সাড়া দিতে পারেন। ডোমেইন কত প্রকার 2023

ঠিক একইভাবে একটি ওয়েবসাইটের নাম নির্ধারণ করা হয় এ কারণেই, যাতে করে ওই নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটে মানুষ প্রবেশ করতে পারে।

উদাহরণস্বরূপ আপনি এখন এই মুহূর্তে যে আর্টিকেলটি পড়ছেন আমার এই ব্লগ সাইটে, আমার ব্লগ সাইটের নাম “সবারটেক ডটকম” (jobcallbd.com) এই যে আমার ব্লগের নামটি রয়েছে এটাই হচ্ছে ডোমেইন নেম। ঠিক একই ভাবে পৃথিবীতে যতগুলো ওয়েব সাইট অথবা ব্লগ রয়েছে তাদের নির্দিষ্ট একটি করে ডোমেইন নাম রয়েছে।

উদাহরণ:

facebook.com

google.com

fiber.com

upwork.com

youtube.com এগুলো প্রত্যেকটি আলাদা আলাদা ডোমেন নেম। যার মাধ্যমে প্রত্যেকটি ওয়েবসাইটকে নির্দিষ্ট ভাবে একটি পরিচয় দিতে সহায়তা করে।

তবে আপনি যদি কোন ওয়েবসাইটের ডোমেইন নেম জানার চেষ্টা করেন তাহলে, খেয়াল করবেন উক্ত নামের পূর্বে “এইচটিটিপিএস” https: এরপর jobcallbd এবং নামের শেষাংশে .com দেখতে পাবেন।

এখন হয়তো আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে এখানে ডোমেইন নেম কোনটি?

তবে আমরা অনেক ক্ষেত্রে ডোমেইন নামের পূর্বে “এইচটিটিপিএস” (https:) “এইচটিটিপি” (http:) অথবা “ডাবলুডাবলুডাবলু” (www)দেখতে পাই।

আপনার মনে হরহামেশা প্রশ্ন জাগতেই পারে তাহলে ডোমেইন নামের পূর্বে এবং শেষে এগুলো কি? একারণেই ডোমেইন নেম নিয়ে আলোচনা করার পূর্বে উক্ত বিষয়গুলো সম্পর্কে সঠিকভাবে জানা দরকার। তাহলে চলুন জেনে নেই http কি?

http কি? “এইচটিটিপি”

এইচটিটিটিপি http অর্থ হল: (Hypertext Transfer Protocol) হাইপারটেক্সট ট্রান্সফার প্রোটোকল। এর মাধ্যমে অনলাইনে ইন্টারনেট কানেকশন দিয়ে কমিউনিকেশন করা যায়। প্রত্যেকটি ওয়েবসাইট ভিজিট করার পর ব্রাউজারের ইউআরএল এ ক্লিক করে দেখবেন যে এইচটিটিপি ফরমেট অটোমেটিক চলে এসেছে।

তবে যে কোন ব্রাউজারের সার্চ বারে গিয়ে যখন একটি ডোমেইন নাম লিখবেন এবং লিখে সার্চ করবেন তখন, ব্রাউজার অটোমেটিকভাবে এটিকে শনাক্ত করে নেবে। এখানে একটি কথা বলে রাখি!

যখন আপনি কোন ডোমেইন নাম লিখে কোন ব্রাউজারে সার্চ করে উক্ত ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন তখন ব্রাউজারের বামদিকে যদি লাল কালারের লক আইকন দেখা যায় তার মানে এই ওয়েবসাইটের এসএসএল (SSL) অর্থাৎ সিকিউর সকেট লেয়ার ব্যবহার করা হয়নি।

সে ক্ষেত্রে যদি আপনি উক্ত লক আইকনে ক্লিক করেন তাহলে দেখতে পাবেন আপনার মোবাইল অথবা ডেস্কটপ এর স্ক্রিণে নট সিকিউর (Not secure!) একটি পপ-আপ ওপেন হবে।

তাই এই ওয়েবসাইটটিতে প্রবেশ করা আপনার জন্য মোটেও নিরাপদ নয় কেননা এ ধরনের ওয়েবসাইটে ডাটা বা তথ্য স্থানান্তর করা হতে পারে।

অর্থাৎ যেকোন ধরনের ফিশিং, হ্যাকিং বা ভাইরাসযুক্ত বিভিন্ন ফরম্যাটে ফাইল ইনক্লুড করা থাকতে পারে এই সকল ওয়েবসাইটে।

এ কারণে আমি আপনাকে রিকোয়ারমেন্ট করব, যে কোন ওয়েবসাইটে ভিজিট করলে সেখানে যদি এইচটিটিপি (http) দেখতে পান তাৎক্ষণিকভাবে সেই ওয়েবসাইট থেকে প্রস্থান করা আপনার জন্য ভালো হবে। এবার চলুন জেনে নেই

https: কি? “এইচটিটিপিএস” 

Https” এইচটিটিপিএস এরস অর্থ হল হাইপারটেক্সট ট্রান্সফার প্রোটোকল সিকিউর (Hypertext Transfer Protocol Secure)।  অর্থাৎ “Https” এইচটিটিপিএস হল এইচটিটিপি http এর সিকিওর ভার্শন।

কেননা এইচটিটিপি (http) এর শেষে S যোগ করার মাধ্যমে এই ওয়েবসাইটটিকে হাইপারটেক্সট ট্রান্সফার প্রোটোকল নির্ধারণ করা হয়ে থাকে। অর্থাৎ আপনি যখন কোন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন সেই ওয়েবসাইটের লিঙ্ক এ ক্লিক করে প্রথমদিকে যদি এইচটিটিপিএস দেখায় তাহলে বুঝে নেবেন সেই ওয়েবসাইট সকলের জন্য নিরাপদ এবং আপনি এই ওয়েবসাইটে তথ্য আদান-প্রদান নির্দ্বিধায় করতে পারেন।

যদি কোন ওয়েবসাইট ভিজিট করার সময় উক্ত ওয়েবসাইটের ইউ আর এল শুরুর দিকে এইচটিটিপি দেখতে পান তাহলে সেই ওয়েবসাইট সকেট লেয়ার দিয়ে নিরাপদ নয়।

আপনাকে আরো জানিয়ে রাখি যখন আপনি কোন ব্রাউজারে যেকোনো একটি ডোমেইন নাম লিখে সেখানে প্রবেশ করবেন, প্রবেশ করার পর উক্ত ব্রাউজারের উপরের দিকে বামে যদি লাল কালারের একটি তালা দেখতে পান তাহলে আপনি ওই ওয়েবসাইট থেকে সঙ্গে সঙ্গে বেরিয়ে যাবেন। কেননা এটা এইচটিটিপি (http) ওয়েবসাইট। এখানে আপনার কোন ধরনের তথ্য নিরাপদ নয়।

পক্ষান্তরে একইভাবে ব্রাউজারে প্রবেশ করার পর বামদিকে ইউ আর এল এর লক আইকনটি যদি সবুজ কালারের হয়ে থাকে তাহলে সেই ওয়েবসাইটে আপনি প্রবেশ করতে পারেন এবং সেখানে আপনার তথ্য ইনপুট করতে পারেন। কেননা এ সকল ওয়েবসাইট এইচটিটিপিএস (https) দ্বারা পরিচালিত যার ফলে এখানে আপনার কোন তথ্য চুরি হবে না এবং আপনি কখনই বিপদে পরবেন না বলে আশা রাখি।

আশা করছে আপনি এইচটিটিপি http এবং এইচটিটিপিএস https এর মধ্যে পার্থক্য বুঝতে পেরেছেন এবং আপনি উপরের এই বিষয়গুলো মেনে চলবেন তাহলে আপনার জন্য এবং সকলের জন্য ভালো হবে।

WWW. অর্থ কি?

এই বিষয়টি সম্পর্কে হয়তোবা আপনি স্কুল-কলেজে বহুবার পড়েছেন। আর সেটি হল ডাবলু ডাবলু ডাবলু (www) world-wide-web কে বোঝায়। একটা সময় গেছে পূর্বের দিনগুলোতে আমি যখন কোন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে চাইতাম তখন উক্ত ওয়েবসাইটের ডোমেইন নাম লেখার পূর্বে www. যোগ করে তারপর সার্চ করতাম।

কিন্তু বর্তমান সময়ে গুগল অথবা অন্যান্য বড় বড় সার্চ ইঞ্জিন কোম্পানিগুলো এটিকে অপটিমাইজেশন করেছে।

এখন যদি আপনি কোন ডোমেইন নেম লিখে গুগল অথবা অন্য কোথাও সার্চ করেন তাহলে অটোমেটিকলি ভাবে এই www.যুক্ত হয়ে যাবে যদি ওই ওয়েব সাইট অথবা ঐ ব্লগ এটিকে সমর্থন করে।

তবে আপনাকে জানিয়ে রাখি যে, কোন ওয়েব সাইটে প্রবেশ করার পূর্বে www.  লিখতে হবে এমন কোনো বাধ্যবাধকতা নেই।

আপনি চাইলে সরাসরি ওই ওয়েবসাইটের ডোমেন নাম লিখে প্রবেশ করতে পারেন।

ধরুন আমার ওয়েবসাইট এর নাম jobcallbd.com এই ডোমেন নাম কে আপনি যেকোন ব্রাউজারে গিয়ে লিখলেই সরাসরি আমার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারবেন।

Leave a Comment